Generic selectors
Exact matches only
Search in title
Search in content
Search in posts
Search in pages
Filter by Categories
English
Lead 1
Lead 2
Lead 4
Lead 5
Lead3
অন্য পত্রিকার খবর
অন্য পত্রিকার খবর ১
অন্য পত্রিকার খবর ২
অন্য পত্রিকার খবর ৩
আরও সংবাদ
ইসলাম
বিবিধ
ভিডিও নিউজ
মৌলিক
শেয়ার করে সবাইকে জানিয়ে দিন :

হতাহতদের স্বজনরা নেপালে


প্রকাশিত :১৩.০৩.২০১৮

নিউজ ডেস্ক: নেপালে বিমান দুর্ঘটনায় হতাহতদের ৪৬ স্বজনকে নিয়ে কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছেছে ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্স। মঙ্গলবার সকাল ৮টা ৪০মিনিটে বিএস-২১১ ফ্লাইটে ঢাকা ছেড়ে যায়। ইউএস বাংলার রিজার্ভেশন এক্সিকিউটিভ আবদুল্লাহ আল মাসুদ গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। হতাহতদের স্বজনদের সঙ্গে এয়ারলাইন্সটির ৭ কর্মকর্তাও রয়েছেন।

সোমবার নেপালের স্থানীয় সময় দুপুর ২টা ২০মিনিটে ত্রিভুবন বিমানবন্দরে অবতরণকালে রানওয়ে থেকে ছিটকে গিয়ে বিমানটি বিধ্বস্ত হয়। ঢাকা থেকে কাঠমান্ডুগামী ওই বিমানে ৬৭ জন যাত্রী ও চারজন ক্রু ছিলেন। এদের মধ্যে দুই শিশুসহ ৩৩ বাংলাদেশি ছিলেন।
সোমবার রাতে পরিবারের সদস্যদের নেপালে নিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছিল ইউএস বাংলা কর্তৃপক্ষ।

এয়ারলাইন্সে বিধ্বস্ত বিমানের কেবিন ক্রু নাবিলা ফারহিনের ভাসুর বাবুল হোসেন জানান, আমরা জানতাম নাবিলা ওই ফ্লাইটে ছিলেন। তবে ইউএস বাংলা আমাদের কিছু জানায়নি। নেপাল গিয়েই নিশ্চিত হতে পারবো।

দুর্ঘটনায় নিহত তাহিরা তানভীন শশির বাবা ডাক্তার রেজা জামান এই ফ্লাইটে নেপাল পৌঁছেছেন। শশির খালাতো ভাই হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের পরিচালক কাজী ইকবাল করিম। সোমবার সন্ধে পৌনে ৭টায় রিজেন্ট এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইটে ঢাকা ত্যাগ করেন।
ওই ফ্লাইটে সিভিল এভিয়েশনের এক্সিডেন্ট এক্সপার্ট সারোয়ার ভুঁইয়া ও ইউএস বাংলার ক্যাপ্টেন লুৎফর রহমান নেপালের উদ্দেশে ঢাকা ছাড়েন।
নবদম্পতি মিনহাজ বিন নাসির ও আঁখি মনি জেসি ফারিয়াও ছিলেন ওই ফ্লাইটে। জেসির ভাই সাকিব রহমান জানান, মরদেহ আনতে ফ্লাইটে চরে আপুর বন্ধুরা গেছেন। এখন অপেক্ষায় আছি তাদের।

শেয়ার করে সবাইকে জানিয়ে দিন :


Designed By BanglaNewsPost