Generic selectors
Exact matches only
Search in title
Search in content
Search in posts
Search in pages
Filter by Categories
English
Lead 1
Lead 2
Lead 4
Lead 5
Lead3
অন্য পত্রিকার খবর
অন্য পত্রিকার খবর ১
অন্য পত্রিকার খবর ২
অন্য পত্রিকার খবর ৩
আরও সংবাদ
ইসলাম
বিবিধ
ভিডিও নিউজ
মৌলিক
শেয়ার করে সবাইকে জানিয়ে দিন :

বিএনপির দায়িত্ব নিজের কাঁধে নিতে বিদেশি কূটনীতিকদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন মির্জা ফখরুল(ভিডিও)


প্রকাশিত :১৪.০৫.২০১৮

নিউজ ডেস্ক: কানাডা, ফ্রান্স, অস্ট্রেলিয়াসহ মোট ১৬টি দেশের কূটনীতিকদের সঙ্গে বৈঠক করে বিএনপির দায়িত্ব নিজের কাঁধে নেওয়ার কথা আবদার করেছেন মির্জা ফখরুল।

রোববার ১৩ই এপ্রিল দলের চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয় গুলশানে বিকাল ৪টা থেকে ৫টা ২৫ মিনিট পর্যন্ত প্রায় দেড় ঘণ্টা চলা ওই বৈঠকে কূটনীতিকদের কাছে দলের প্রধান হবার সহযোগিতা চেয়ে এ আবদার করে মির্জা ফখরুল। বিষয়টি বাংলা নিউজ পোস্টকে নিশ্চিত করেছেন মির্জা ফখরুলপন্থী বিএনপির এক সিনিয়র নেতা।

বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, বৈঠকের শুরুতেই সার্বিক পরিস্থিতি সম্পর্কে কূটনীতিকদের একটি লিখিত কপি দেয়া হয়। যাতে দলটির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক অদক্ষতা, সীমাহীন দুর্নীতি, কারাগার থেকে আগমী পাঁচ বছর বের হতে না পারার সম্ভাবনা এবং তারেক রহমানের ২০০৭ সালে জীবনে আর কখনও রাজনীতি না করার মুচলেকার বিষয়টি তুলে ধরা হয়।

মির্জা ফখরুল দায়িত্ব কাঁধে নেওয়ার বিষয়ে বলতে গিয়ে বৈঠকে উপস্থিত থাকা বিএনপির এক নেতা বলেন, দলের এই সংকটময় মুহূর্তে আমরা এমন সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয়েছি। বিএনপি একটি ঐতিহাসিক দল। যেভাবেই হোক আগামী নির্বাচনে আমাদের অংশ নিতেই হবে। এছাড়া দলীয় চেয়ারপারসন কারাগারে এবং ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানও লন্ডন থেকে দেশে আসতে চাচ্ছেন না। তবে দলকে এগিয়ে নিয়ে যেতেই হবে। যার কারণেই আমরা ১৬টি দেশের কূটনীতিকদের সঙ্গে বসে মির্জা ফখরুল ভাইয়ের বিষয়ে কথা বলেছি।

তবে ভিন্ন মতামত ব্যক্ত করেছেন তারেক ও রুহুল কবির রিজভীপন্থী নেতাকর্মীরা। তারা বলেন, ১৬টি দেশের কূটনীতিকদের সঙ্গে কথা হয়েছে ঠিকই। কিন্তু এই বৈঠকে ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ড. আবদুল মঈন খান, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়সহ সিনিয়র নেতারা উপস্থিত থাকলেও রিজভী ভাইসহ আমরা কেউই অংশগ্রহণ করিনি। যার কারণ হচ্ছে মির্জা ফখরুল অনেক দিন থেকেই চাইছে দলের প্রধান হতে। কিন্তু খালেদা জিয়া এবং তারেক রহমান বেঁচে থাকতে তা কোনো দিনই সম্ভব নয়।

এ প্রসঙ্গে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজনীতি বিষয়ক এক উপাচার্যের সঙ্গে কথা হলে তিনি বিষয়টি স্বাভাবিক জানিয়ে বলেন, সাধারণ জনগণ ক্লিন ইমেজের মানুষ পছন্দ করে। সে দিক থেকে মির্জা ফখরুল পারফেক্ট ব্যক্তি। এছাড়া, খালেদা জিয়ার ৫ বছরের জেল হয়েছে। অপরদিকে তারেক রহমানেরও দেশে ফেরার সম্ভাবনা নেই। সে ক্ষেত্রে মির্জা ফখরুল যদি দলের প্রধান হয় তবে দোষের কিছুই নেই। বরং পুরোটাই লাভের।

শেয়ার করে সবাইকে জানিয়ে দিন :


Designed By BanglaNewsPost