Generic selectors
Exact matches only
Search in title
Search in content
Search in posts
Search in pages
Filter by Categories
English
Lead 1
Lead 2
Lead 4
Lead 5
Lead3
অন্য পত্রিকার খবর
অন্য পত্রিকার খবর ১
অন্য পত্রিকার খবর ২
অন্য পত্রিকার খবর ৩
আরও সংবাদ
ইসলাম
বিবিধ
ভিডিও নিউজ
মৌলিক
শেয়ার করে সবাইকে জানিয়ে দিন :

প্রসঙ্গ বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট: তবে কি খালেদা জিয়ার সঙ্গে থেকে অশিক্ষিত হয়ে গেছেন মির্জা ফখরুল(ভিডিও)


প্রকাশিত :১৫.০৫.২০১৮

নিউজ ডেস্ক: শুক্রবার দিবাগত রাতে উৎক্ষেপণ হওয়া বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ নিয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মালিকানা চলে গেছে দুজন লোকের হাতে। ওটা আগে ঘুরুক, পৃথিবী পরিক্রম করুক। তারপর দেখা যাবে।

শনিবার ১২ই মে দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে আয়োজিত আলোচনা সভায় মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এমন বক্তব্যের পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনার ঝড় বইছে।

ফারজানা হক নামের একজন লিখেছেন, ১৯৭২ সালে স্বাধীন বাংলাদেশে মির্জা ফখরুল অধ্যাপনাকে পেশা হিসেবে গ্রহণ করেন। তিনি ঢাকা কলেজের অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষক হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। অথচ তিনি এমন অশিক্ষিতের মতো কথা কিভাবে বলেন? জেনে বুঝেই কি দেশবাসীকে বিভ্রান্ত করার জন্য এই ডাহা মিথ্যা? দেশের উন্নয়ন এবং এগিয়ে যাওয়া আপনাদের ছোট মানসিকতায় ধারণ করতে পারে না। আপনাদের মেনে নিতে কষ্ট হয়, এটা জাতি বোঝে। এর আগেও সমুদ্রসীমা জয় এবং সাবমেরিন ক্রয় নিয়েও আপনাদের একই ধরনের সংকীর্ণ মানসিকতার বহিঃপ্রকাশ জাতি দেখেছে।

মির্জা ফখরুলের এ কথা প্রসঙ্গে, সোশ্যাল মিডিয়া এক্টিভিস্ট বিএম রাজন লিখেন, মির্জা ফখরুলের এমন কথায় আমি হতবম্ব হয়ে যাই।  তবে কি তিনি খালেদা জিয়ার সঙ্গে থাকতে থাকতে অশিক্ষিত হয়ে গিয়েছেন।  তিনি বলেছেন, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মালিকানা নাকি দুটো প্রাইভেট কোম্পানির হাতে চলে গেছে। ফখরুল সাহেব নব্বই দশকের গোড়ার দিকে বিনে পয়সায় বাংলাদেশকে সাবমেরিন ক্যাবলে সংযুক্ত হওয়ার যে প্রস্তাব নাকচ করে দিয়েছিলো আপনার নেত্রী খালেদা জিয়া এবং বাংলাদেশেকে পিছিয়ে দিয়েছিলেন আপনারা সেদিনের কথা কি আপনারা ভুলে গেছেন?

এছাড়া বেলাল আলম খান লিখেন, প্রতিটি ক্ষেত্রে রাজনীতি ভালো লাগে না। মির্জা ফখরুল স্যারকে সম্মানের চোখে দেখতাম। কিন্তু তিনি এতো অজ্ঞ কিভাবে? তিনি বলেছেন, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মালিকানাও চলে গেছে দুজন লোকের হাতে। এখানে তিনি বেক্সিমকো গ্রুপকে বুঝিয়েছেন। আপনাদের জ্ঞাতার্থে জানাচ্ছি বেক্সিমকো ‘বাংলাদেশ কমিউনিকেশন স্যাটেলাইট কোম্পানি লিমিটেড’কে কমার্শিয়াল সাপোর্ট দেওয়ার জন্য তালিকভুক্ত হতে আবেদন করেছে, তবে এর চেয়ে বেশি কিছু নয়। যারা বলছেন সব লাভ বেক্সিমকো গ্রুপের হবে তারা সুধু সরকারের ভাবমূর্তি নষ্ট করার জন্যই এমনটি প্রচারণা করছেন। এসব ঠিক না চলুন, দেশের অর্জনকে গর্ব করে বলি।

এ প্রসঙ্গে বিটিআরসির এক কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মালিকানা কোনো প্রাইভেট কোম্পানিকে দেয়া হয়নি। বঙ্গবন্ধু স্যটেলাইট পরিচালনার সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ ১৫ আগস্ট ২০১৭ সালে প্রতিষ্ঠিত সরকারী মালিকানাধীন কোম্পানি বাংলাদেশ কমিউনিকেশন স্যাটেলাইট কোম্পানি লিমিটেড (বিসিএসসিএল) এর কাছে থাকবে।  স্যাটেলাইটের ট্রান্সপন্ডার ব্যবহারের ক্ষেত্রে শর্তসাপেক্ষ অনুমতি প্রদান করবে বিসিএসসিএল। ফলে স্যাটেলাইটের মালিকানা দুজন লোকের হাতে চলে গেছে এমন কথা বলার কোনো প্রশ্নই ওঠে না। যারা এমন বলছেন তারা সুধু দেশকে ছোট করার জন্যই এমনটি বলছেন।

শেয়ার করে সবাইকে জানিয়ে দিন :


Designed By BanglaNewsPost